বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ভাই সাইদ এস্কান্দার আর নেই। গতকাল ২৩ সেপ্টেম্বর নিউ ইয়র্কের একটি হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ... রাজিউন)।

তিনি বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও ফেনী জেলা বিএনপির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছিলেন। ২০০১ সালে অষ্টম জাতীয় সংসদে বিএনপি’র মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।  বিএনপি চেয়ারপার্সনের প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান জানান, দিনাজপুরের সমাবেশ শেষে ঢাকায় ফেরার পথে সাইদ এস্কান্দারের মৃত্যুর খবর তার বড় বোন বেগম খালেদা জিয়াকে জানানো হয়। ফেনী জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক ও সংসদের সংরক্ষিত আসনের এমপি রেহানা আক্তার (রানু) জানান, সাইদ এস্কান্দার নিউ ইয়র্কের বু্রকডেল হাসপাতালে বেলা পৌনে বারটায় (বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায়) ইন্তেকাল করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ফুসফুসের ক্যান্সারে ভুগছিলেন। ক্যান্সারের চিকিৎসা করাতে গত রোজার আগে তিনি নিউ ইয়র্কের ওই হাসপাতালে ভর্তি হন। এখানে তার চিকিৎসার বিষয়ে সার্বিক দেখভাল করতেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতা ও ব্রুকডেল হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মুজিবুর রহমান। মৃত্যুকালে তার শয্যাপাশে পরিবারের একজন আত্মীয় উপস্থিত ছিলেন। এর আগে সিঙ্গাপুরের হাসপাতালেও চিকিৎসা নেন তিনি।

মৃত্যুকালে সাইদ এস্কান্দারের বয়স হয়েছিল ৫৯ বছর। তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়ে, বড় বোন খালেদা জিয়া, ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার ছাড়াও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। উল্লেখ্য, সাইদ এস্কান্দার ১৯৫৩ সালের ১৩ জানুয়ারি দিনাজপুর শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা মরহুম এস্কান্দার মজুমদার ও মা মরহুমা তৈয়বা মজুমদার। তিনি ১৯৭৪ সালে সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন এবং ১৯৭৫ সালে কমিশন লাভ করেন। ১৯৮০ সালে তিনি মেজর পদে উন্নীত হন। সেনাবাহিনী থেকে অবসর গ্রহণের পর তিনি ব্যবসায় আত্মনিয়োগ করেন। তিনি ব্যবসার পাশাপাশি বিএনপির মাধ্যমে সক্রিয় রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত হন। তিনি ১৯৮৮ সালে বিএনপির বিশেষ সম্পাদকের দায়িত্বপ্রাপ্ত হন।

এছাড়া তিনি ১৯৯১ সাল থেকে জিয়া ফোরাম, ১৯৯৯ সাল থেকে দেশনেত্রী ফাউন্ডেশনের প্রধান উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করেন। তিনি অষ্টম সংসদে এমপি পদে নির্বাচিত হয়ে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এবং স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ইসলামিক টিভি’র স্বত্বাধিকারী। সাইদ এস্কান্দারের মৃত্যুতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জাতীয় প্রেস ক্লাব সভাপতি কামাল উদ্দিন সবুজ ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমদ গভীর শোক প্রকাশ করেন। যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু জানান, মেজর সাইদ এস্কান্দারের লাশ ব্রুকডেল হাসপাতালের কাছে একটি ইসলামিক ফিউনারেল হোমে রাখা হবে। আগামীকাল নিউ ইয়র্ক সিটির কুইন্সে অবস্থিত জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর বিমানে আসন পাওয়া সাপেক্ষে তার লাশ দেশে পাঠানো হবে।

এ. কে. আজাদ - বার্তা সম্পাদক