অহংকার 
        শ্যামল হোসেন
মহাশূন্যের গভীরে ঘন অন্ধকারে 
মন উল্কার মত বিচরণ করে
ক্রমশ কালো গুহার দিকে ধেয়ে চলে

চকিতে থেমে, একটু হেসে বলে
যা হবার তাই হবে।
বিশ্ব ব্রম্মান্ডের রীতিই এই
আজ যা আছে কাল তা নেই
নিশিথের ফুল চাপা অভিমানে
নিশ্বব্দে প্রভাতে ঝরে পরে।
প্রমত্তা নদীও একদিন শুকিয়ে যায়
অতি মায়াময় হরিনীর চোখও মলিন হয়
জ্বলজ্বলে তারাও একদিন নিভে যায়।
জীবন ও মহাকাল যেন গউসের প্রতিচ্ছবি
তত্ব ও অঙ্কের সুতায় বাঁধা
সপ্ত বর্ণ মিলে তৈরী হয় এক বর্ণ সাদা।
মঙ্গলে যখন প্রাণ ছিল ভেবেছিল কি সে তখন
একটি আঘাতে হবে তার অস্তিত্ব হণন।
চারিদিকে হেরি আপেক্ষিকতার জয়
সুউচ্চ হিমালয়েরও হবে একদিন ক্ষয়।
অতিক্ষুদ্র মানবের পানে চেয়ে প্রভু নিরাকার
বিনয়ে সুধায় প্রিয় মানায় কি তোমায় এত অহংকার।