কান্না
         শ্যামল হোসেন

মলিন ধরণী কি বেদনায়,

মেঘরূপে অবিরাম কেঁদে যায়।

কাঁদে নদী, কাঁদে বনানী,

কাঁদে তরু, কাঁদে হরিণী।

কোমল কমল কাঁদে নিঝুম নিশীথে,

পূর্ণ শশীও কাঁদে সাথে সাথে।

কুটিরে একা কাঁদে গোপী ললনা,

নীরবে কাঁদে দূরে নীল যমুনা।

কেঁদে কেঁদে ঝরে পড়ে শিউলী মুকূল,

কাননে আরও কাঁদে মালতি বকুল।

প্রিয় বিরহে কাঁদে অচেনা পাখী,

কান্নায় ভাসে তার কাজল আঁখি।

সমুদ্র একান্তে বলে আকাশকে ডাকি,

এত কান্না বল আমি কোথায় রাখি।