ক্রমবর্ধমান ইসরাইলী দখলদারিত্বের কারণে ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড সংকোচিত হয়ে আসছে। দুটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন ক্ষীণ হয়ে আসছে। গতকার সংবাদ মাধ্যমে মি. কভনি ইসরাইলের জর্ডান উপত্যকা ও পশ্চিম তীরে নতুন বসতি নির্মাণের পরিকল্পনাকে অবৈধ ঘৃণিত ও ন্যাক্কারজনক ব্যাপার বলে আখ্যায়িত করেন।

তিনি আরো বলেন, "আয়ারল্যান্ড কখনো এই বিতর্কিত আন্তর্জাতিক আইন বিরোধী কর্মকান্ডকে সমর্থন জানাবে না। জাতিসংঘের নীতিমালায় স্পষ্ট লিপিবদ্ধ আছে কোন দেশ অন্যায়ভাবে অন্য দেশের ভূখণ্ড দখল নিতে পারবে না, এটি ইউরোপ, এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্যে কিংবা আমাদের নিকটতম প্রতিবেশী যেই হোক না কেন আয়ারল্যান্ড সব সময় তার প্রতিবাদ ও বিরুদ্ধাচরণ অব্যাহত রাখবে।"

উল্লেখ্য ১৯৬৭ সালের জাতিসংঘের রেজুলেশন অনুযায়ী ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনি দুটি আলাদা দেশ গঠন করার কথা বলা হয়েছে যেখানে জেরুজালেমে থাকবে দুটি দেশেরই রাজধানী কিন্ত ইসরায়েল তাদের প্রভু আমেরিকার মদদে সেই রেজুলেশনের প্রতি ভ্রুক্ষেপ না করে অন্যায়ভাবে ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে বসতি নির্মাণ করে যাচ্ছে।

ওবায়দুর রহমান রুহেল
অনুবাদ করা হয়েছে দি আইরিশ সান থেকে