আয়াল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী (তিশক) লিও ভারাতকার বলেছেন "ভাড়া স্থিরকরণ এবং উচ্ছেদের উপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি বর্ধিত করা যেতে পারে।" তিনি আরোও বলেছেন, "জরুরি ব্যবস্থাগুলোর মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত কয়েক সপ্তাহের মধ্যে নেওয়া হতে পারে।"

HSE ডাবলিন কোভিড-১৯ রিসপোন্স হাবে এক সাক্ষ্যাতকারে দি জার্নাল ডট আই ই'র সাংবাদিককে লিও ভারাতকার বলেন, "জরুরী ব্যবস্থাগুলোর সময় বর্ধিতকরণে এখন পর্যন্ত কোন সিদ্ধান্ত হয়নি।"

ভারাতকার সাহেব বলেন, "ইতিমধ্যে ১২ সপ্তাহের জন্য অনেকগুলো বিষয়ে অস্থায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, যেমনঃ আর্থিক সহযোগিতা দেওয়া, বাড়ী ভাড়া স্থিরকরণ এবং ভাড়াটিয়াদেরকে উচ্ছেদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারী ইত্যাদি। ধরে নেওয়া হয়েছিল, এই মহামারিটি ১২ সপ্তাহের মধ্যেই নিয়ন্ত্রনে চলে আসবে। যদি মহামারিটি যথেষ্ট নিয়ন্ত্রনে চলে না আসে তাহলে উপরোক্ত অস্থায়ী সিদ্ধান্তগুলোর সময় বর্ধিত করা হতে পারে। তবে উপরোক্ত অস্থায়ী সিদ্ধান্তগুলো বর্ধিত করার বিষয়ে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। অস্থায়ী সিদ্ধান্তগুলোর সময় বর্ধিত করার বিষয়ে খুব শীঘ্রই জানানো হবে।

প্রাথমিকভাবে, ভাড়া স্থিরকরণের সিদ্ধান্ত তিন মাসের জন্য নির্ধারণ করা হয়েছিল কিন্তু সরকার সর্তকতা জারী করেছে এই মর্মে যদি প্রয়োজন হয় তাহলে বাড়ী ভাড়া স্থিরকরণ এর সময় বর্ধিত করা হবে।

কোভিড-১৯ এর কারণে এখন পর্যন্ত ১০,০০০ লোক তাদের চাকুরী হারিয়েছে, বহু সংখ্যক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান স্থায়ীভাবে অথবা অস্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে গেছে।

নতুন সরকারী নিয়মানুযায়ী, কোভিড-১৯ চলাকালীন অবস্থায় বাড়ীওয়ালারা বাড়ী ভাড়া বৃদ্ধি করতে পারবে না এবং কোন ভাড়াটিয়াকে বাড়ী অথবা এ্যাপার্টমেন্ট ছাড়ার নোটিস দিতে পারবে না। সরকারী নিয়ম লঙ্গণ করে যদি কোন বাড়ীর মালিক ভাড়াটিয়াদেরকে এ্যাপর্টম্যান্ট অথবা বাড়ী ছাড়ার নোটিশ অথবা ভাড়া বৃদ্ধির নোটিশ দেয় তাহলে সরকারী আইন অনুযায়ী এই নোটিশ কার্যকর হবে না।

নাসির আহামেদ
অনুবাদ করা হয়েছে দি জার্নাল ডট আই ই থেকে