LAST UPDATED (Ireland Time)

Mon, 06 Nov 2017 6pm

Back আপনার অবস্থান: হোম স্বাস্থ্য স্বাস্থ্যের খবর অন্যান্য আজ বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস

আজ বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস

আজ বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসচট্টগ্রাম প্রতিনিধি - আইরিশ বাংলা বার্তা
ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত হার প্রতিনিয়ত বাড়ছে। এর সঙ্গে বাড়ছে অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিসে আক্রান্তের হারও। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ডায়াবেটিস যখন নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে যায়, তখন শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও কমে যায়।

তখন বিভিন্ন অংশ নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার সমূহ সমসম্বাবনা আছে। এর জন্য প্রয়োজন সচেতনতা, ব্যায়াম, নিয়মানুবর্তিতা, প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও ওষুধ সেবন। আজ বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা মতে প্রতি বছরের ১৪ নভেম্বর বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালন করা হয়।

চট্টগ্রাম ডায়াবেটিক জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক ডা. নওশাদ আহমেদ খান  আইরিশ বাংলা বার্তাকে বলেন, ডায়াবেটিস একটি বিপাক জনিত রোগ। আমাদের শরীরে ইনসুলিন নামের হরমোন-জনিত কারণে এ রোগ হয়। হরমোনের সম্পূর্ণ বা আপেক্ষিক ঘাটতির কারণে বিপাকজনিত গোলযোগ সৃষ্টি হয়ে রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। ফলে এক সময় তা প্রস্রাবের সঙ্গে বেরিয়ে আসে। ডায়াবেটিস ছোঁয়াচে বা সংক্রামক কোন রোগ নয়। তিনি বলেন, বর্তমানে ডায়াবেটিস গ্যাংগ্রিন এর হার আগের তুলনায় অনেকাংশে বাড়ছে। ১০ শতাংশ ডায়াবেটিস রোগী এই অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হচ্ছে। শরীরের রক্তনালী যখন বন্ধ হয়, তখন যে অংশের বন্ধ হয় সে অংশের হাড় পর্যন্ত পচন ধরে। তখন ওই অংশ কেটে ফেলার প্রয়োজনও পড়ে।

জানা যায়, আগামী প্রজন্মকে ডায়াবেটিস মুক্ত রাখতে চট্টগ্রাম ডায়াবেটিক জেনারেল হাসপাতালের পক্ষ থেকে ‘চেঞ্জিং ডায়াবেটিস ইন চিল্ড্রেন প্রোগ্রাম’ শীর্ষক একটি প্রকল্প চলছে। এ কর্মসূচির মাধ্যমে এক থেকে ১৮ বছরের রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা, ওষুধ, সিরিঞ্জ, ইনসুলিন, বিনামূল্যে ডায়াবেটিস মাপার যন্ত্র (গ্লুকুমেটার) প্রদান, যাতায়াত ভাতাসহ নানা সুবিধা দেয়া হচ্ছে। হাসপাতালের পুষ্টি বিভাগের অধ্যক্ষ হাসিনা আকতার লিপি আজাদীকে বলেন, ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর সে রোগ শরীরে নানাভাবে সমস্যা সৃষ্টি করে। এ রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর চোখ, কিডনি, হৃদরোগ, পুষ্টি সমস্যাসহ বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই এ রোগ থেকে বাঁচতে হলে পরিমিত ও সুষম খাবার এবং শারীরিক ব্যায়ামের কোনো বিকল্প নেই। তিনি বলেন, এই মুহূর্তে আমাদের সকলের একমাত্র ব্রত, নতুন প্রজন্মকে ডায়াবেটিস থেকে রক্ষা করা। কারণ বর্তমানে তিন শতাংশ তরুণ ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। এর অন্যতম কারণ হলো- তরুণদের মধ্যে ফাস্ট ফুড খাওয়ার প্রবণতা বৃদ্ধি, অনিয়মিত খাবার গ্রহণ, ব্যায়াম না করা, খেলাধুলা না করা।

ডায়াবেটিসের লক্ষণ
ডায়াবেটিস হলে সাধারণত যেসব লক্ষণ ও উপসর্গ দেখা যায় সেগুলো হলো- ঘন ঘন প্রস্রাব হওয়া, খুব বেশী পিপাসা লাগা, বেশী ক্ষুধা পাওয়া, যথেষ্ট খাওয়া সত্ত্বেও ওজন কমে যাওয়া, দুর্বলতা অনুভব করা, ক্ষত শুকাতে দেরি হওয়া, খোশ-পাঁচড়া, ফোঁড়া প্রভৃতি চর্মরোগ দেখা দেওয়া, চোখে কম দেখা।

অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিসের বিপদ
নিয়ন্ত্রণহীন ডায়াবেটিস দেখা দিলে নানা রোগ দেখা যেতে পারে। এর মধ্যে পক্ষাঘাত, স্নায়ুতন্ত্রের জটিলতা, হৃদরোগ, পায়ে পচনশীল ক্ষত, চক্ষুরোগ, প্রস্রাবে আমিষ বের হওয়া, পরবর্তীতে কিডনির কার্যক্ষমতা লোপ পাওয়া, পাতলা পায়খানা, যক্ষ্মা, মাড়ির প্রদাহ, চুলকানি, ফোঁড়া, পাঁচড়া, রোগের কারণে যৌন ক্ষমতা কমে যাওয়া, মহিলাদের ক্ষেত্রে বেশী ওজনের শিশু, মৃত শিশুর জন্ম , অকালে সন্তান প্রসব এর পরই শিশুর মৃত্যুসহ নানা ধরনের জন্মগত ত্রুটি দেখা দিতে পারে। জন্ম ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে করণীয় ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে চারটি নিয়ম অনুসরণ করা প্রয়োজন বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। এগুলো হলো- নিয়ন্ত্রিত খাদ্য গ্রহণ, সাধ্যমত কায়িক পরিশ্রম ও ব্যায়াম করা, নিয়মিত ওষুধ সেবন করা ও সচেতন হয়ে এ বিষয়ে শিক্ষা গ্রহণ করে প্রতিটি পর্যায়ে শৃঙ্খলা মেনে চলতে হবে। এছাড়া প্রতিদিন অন্ততঃ ৪৫ মিনিট হাঁটা, খাদ্য ও পুষ্টির চাহিদা ডায়াবেটিস হওয়ার আগে যে রকম থাকে পরেও একই রকম রাখা, পুষ্টির চাহিদার কোনো তারতম্য না করা।

Copyright 2013 TheIBB.org, All Rights Reserved, Irish Bangla Barta
Voice of Bangladeshi community in Ireland
Contact Us | Terms & Conditions | Privacy & Cookie Policy